অথচ তুমি আমি এই পৃথিবীর সবটাই কিনেছিলাম

অথচ তুমি আমি এই পৃথিবীর সবটাই কিনেছিলাম

এতটুকুও দরকষাকষি ছিলো না আমাদের মাঝে 

তবুও হুট করে আসা কালবৈশাখী-তে লন্ডভন্ড হয়ে গেছে সব

তোমার পৃথিবী থেকে ছিটকে পড়ে গেছি আমি

এখন আর তোমার পৃথিবী বা তোমাতে আমি নেই

এখন আমাতে আষ্টেপৃষ্টে আছে নিদারুণ একাকীত্ব।

তোমারও কি ঠিক এমন করে খুব একাকীত্ব আসে?

আমার মত করে তোমারও কি মন ভাঙে?

মন গড়ার বাহানায় !!

তোমার সন্ধ্যা বেলার পূজার থালায়

এখনো কি লেগে থাকি আমি কোন এক কোণে?

যেখানে তুমি প্রার্থনা করো কিন্তু ঈশ্বর দেখেন না।

তোমার কি এখনো তেমন অভিমান আছে,

যে অভিমানে পৃথিবী করেছিলে দু’ভাগ –

যে পৃথিবীর এক ভাগ মৃত -এক ভাগ ত্যাগ।

আমি কি এখনো তোমার কেউ হয়ে আছি ?

নাকি আমাতেও জমে গেছে ধুলো-

ফেলে রাখা স্তূপের মত! 

শুনেছি দিনের অন্তীম লগ্নে এ শহরে একটা হাট বসে

সে হাটে কষ্টের নিলাম হয়,হরেক রকমের কষ্ট

কাল সে হাটে যাবো,-হৃদয় চিবিয়ে কষ্ট বেচবো

খুব সস্তায় বেচে দেবো সব কষ্ট

যত সস্তায় বেচলে একটা আদরের চাদর কেনা যায়।

আমার শহরে সব আছে শুধু আদর নেই,

তাই আদরের চাদরে স্মৃতি গুলো লুকিয়ে পেলে পুষে বড় করবো।

স্মৃতিগুলো বড় হলেই তোমাকে উপহার দেবো

তুমি শো-পিচের মতো সাজিয়ে রেখো

নিলামে নিও না প্রিয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *